শিশির যুক্তরাষ্ট্রে, বোনকে নিয়ে জন্মদিনের কেক কাটলেন সাকিব

সদ্য ছেলেসন্তানের বাবা হওয়া সাকিব আল হাসান দেশে ফিরেছেন।  স্ত্রী উম্মে আহম্মেদ শিশির ও সদ্যজাত সন্তানকে যুক্তরাষ্ট্রে রেখে ঢাকায় ফিরেই বুধবার অনুশীলনে যোগ দিয়েছেন বিশ্বসেরা এ অলরাউন্ডার।

আজ জীবনের ৩৩ বসন্ত পেরিয়ে ৩৪-এ পা দিয়েছেন সাকিব।  স্ত্রী বিদেশ থাকায় এবার তাকে নিয়ে কেক কাটা হলো না সাকিবের।  সোমবার গভীর রাতে যুক্তরাষ্ট্র থেকে দেশে ফিরে জন্মদিনটা বোন জান্নাতুল ফেরদৌস রিতুর সঙ্গে উদযাপন করলেন তিনি। এবারের উদযাপনটা একটু অনাড়ম্বরই ছিল।

মধ্যরাতে কেক কেটে সকালেই অনুশীলনে যোগ দিয়েছেন সাকিব। পরের সিরিজের জন্য নিজেকে প্রস্তুত করছেন দেশের ক্রিকেটের এই প্রাণভ্রমরা। 

সাকিবের জন্ম ১৯৮৭ সালের ২৪ মার্চ। কৃষি ব্যাংক কর্মকর্তা মাশরুর রেজা আর গৃহিণী শিরিন শারমিনের ঘর আলোকিত করে আসেন ফয়সাল। শুরুতে পরিবার থেকে এ নামেই ডাকা হতো সাকিবকে। পরিবারের প্রথম ও একমাত্র ছেলেসন্তান সাকিব।

বাবা মাশরুর রেজা একসময় মাগুরায় ভালো ফুটবল খেলতেন। সে কারণেই সাকিবের শুরুটা হয় ফুটবল দিয়ে। বাবার ইচ্ছাও ছিল তাই।  পরে ক্রিকেটেই থিতু হন সাকিব।

২০০৬ সালে হারারেতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় তার। একই বছর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেই খুলনায় টি-টোয়েন্টি ও পরের বছর চট্টগ্রামে ভারতের বিপক্ষে টেস্টে অভিষেক হয় সাকিবের।

২০০৯ সালে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ওয়ানডে অলরাউন্ডার র্যাংকিংয়ের শীর্ষে উঠে আসেন সাকিব।
টেস্ট ক্রিকেটে ৫৭ ম্যাচ খেলে রান করেছেন ৩৯৩০, গড় ৩৯.৭০, শতক ৫ টি, অর্ধশতক ২৫ টি, উইকেট ২১০ টি। 

ওয়ানডে ক্রিকেট ম্যাচ খেলেছেন ২০৯ টি, ইনিংস ১৯৭ টি, রান ৬৪৩৬, শতক ৯ টি, অর্ধশতক ৪৮ টি, উইকেট ২৬৬টি। 

টি-২০ ক্রিকেটে ৭৫ ইনিংসে রান ১৫৬৭, উইকেট ৯২ টি সাকিবের।