বিসিবিকে দেওয়া সেই চিঠিতে কী লিখেছিলেন, জানালেন সাকিব

নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ক্রিকেটে ফিরেই নানা বিতর্ক ও সমালোচনার জন্ম দিয়ে যাচ্ছেন দেশসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান।

বিশেষ করে শ্রীলংকা সফর বাদ দিয়ে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) খেলার অভিপ্রায় নিয়ে তুমুল সমালোচিত হন সাকিব।  যার রেশ এখনও রয়ে গেছে। 

সাকিবের সমালোচনায় মেতেছিলেন বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনাপ্রধান আকরাম খানসহ খোদ সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনও। 

সেই সময় তারা মন্তব্য করেছিলেন— টেস্ট খেলতে আগ্রহী নন সাকিব। 

খুব স্বাভাবিকভাবেই যা নিয়ে আলোচনার ঝড় বয়ে গেছে বাংলাদেশের ক্রিকেটাঙ্গনে। 

এতদিন ধরে বিসিবিপ্রধানের সেই মন্তব্য নিয়ে কোনো প্রতিক্রিয়া জানাননি সাকিব।  মুখে কুলুপ এঁটেছিলেন। 

তবে শনিবার ফেসবুক লাইভে এসে হঠাৎ নিজের অবস্থান পরিষ্কার করলেন। জানালেন, সেই সময় আইপিএলের জন্য ছুটি চেয়ে বিসিবিকে দেওয়া তার চিঠিতে কী লিখেছিলেন।

সাকিবের দাবি, টেস্টবিষয়ক বিসিবিপ্রধানের সেই মন্তব্যটি ভুল ছিল।  চিঠির কোথাও উল্লেখ নেই যে, তিনি টেস্ট খেলতে আগ্রহী নন।

একটি অনলাইন সংবাদমাধ্যমের ফেসবুক লাইভ অনুষ্ঠানে এসে সাকিব বলেন, ‘শুধু কথা হচ্ছে আমি টেস্ট খেলতে চাই না। আমি নিশ্চিত বিসিবিকে যখন চিঠি দিয়েছি, যারাই বলছে যে, আমি টেস্ট খেলতে চাই না বা টেস্ট খেলব না, তারা চিঠিটা পড়েননি। এটি হচ্ছে একদম বড় কথা। আমি আমার চিঠিতে কোথাও উল্লেখ করিনি যে, আমি টেস্ট খেলতে চাই না। আমি শুধু উল্লেখ করেছি, আমি বিশ্বকাপ প্রস্তুতির জন্য এই সময়টাতে আইপিএল খেলতে চাই। শুধু এটুকুই বলেছি।’  

তার চিঠির ভুল ব্যাখ্যা করা হয়েছে দাবি করে সাকিব বলেন, ‘আকরাম ভাই বারবার বলেছে— আমি খেলতে চাই না। আমার ধারণা উনি চিঠিটি পড়েননি।’

বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনাপ্রধানের এমন সমালোচনা করে অবশ্য বিসিবিপ্রধানের স্তূতি গাইলেন সাকিব। বললেন, ‘পাপন ভাইকে ধন্যবাদ।  উনি সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। খেলোয়াড়দের এই স্বাধীনতা দেওয়া উচিত। বোর্ড কিংবা বোর্ডপ্রধান যদি কোনো ক্রিকেটারকে এভাবে সাহায্য করে, তা হলে ক্রিকেটারের আত্মবিশ্বাস বেড়ে যায়। পরে ক্রিকেটারদের জাতীয় দলের প্রতি দায়বদ্ধতাও বেড়ে যায়। সেদিক থেকে পাপন ভাইকে ধন্যবাদ দিতে চাই।’