পাপুলের স্ত্রী ও মেয়ের জামিন বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেছে দুদক

অবৈধ সম্পদ অর্জন ও অর্থপাচার মামলায় লক্ষ্মীপুর-২ আসনের বহুল আলোচিত সংসদ সদস্য কুয়েতে কারাবন্দি কাজী সহিদ ইসলাম পাপুলের স্ত্রী এমপি সেলিনা ইসলাম ও মেয়ে ওয়াফা ইসলামকে বিচারিক আদালতের দেওয়া জামিন বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। 

বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি মহি উদ্দিন শামীমের ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চে আজ সোমবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) এ আবেদনের ওপর শুনানি হতে পারে।

আদালতে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পক্ষে থাকবেন মো. খুরশীদ আলম খান ও রাষ্ট্রপক্ষে থাকছেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন।

দুদকের এ মামলায় আগাম জামিন চেয়ে আবেদন করার পর হাইকোর্ট তাদের বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেন। সে অনুসারে আত্মসমর্পণের পর গত বছরের  ২৭ ডিসেম্বর তাঁদের জামিন দেন ঢাকার মহানগর সিনিয়র স্পেশাল জজ কে এম ইমরুল কায়েশ। ওই জামিনের আদেশ বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করে দুদক।

গত বছরের ২৬ ফেব্রুয়ারি পাপুলের বিরুদ্ধে মানবপাচারসহ জ্ঞাত আয়বহির্ভূত উপায়ে শত শত কোটি টাকা অর্জন করে হুন্ডির মাধ্যমে বিদেশে পাচারের অভিযোগ অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নেয় দুদক। একই বছরের ১১ নভেম্বর দুদকের উপ-পরিচালক মো. সালাহউদ্দিন বাদী হয়ে দুই কোটি ৩১ লাখ টাকার অবৈধ সম্পদ ও ১৪৮ কোটি টাকার অর্থ পাচারের অভিযোগে সহিদ ইসলাম পাপুল ও তাঁর স্ত্রী সংরক্ষিত আসনের এমপি সেলিনাসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

মামলার আসামিরা হলেন পাপুল, তাঁর স্ত্রী সেলিনা ইসলাম, মেয়ে ওয়াফা ইসলাম ও সেলিনার বোন জেসমিন প্রধান।