ফাইভ জি ফোন আনছে অ্যাপল

আইফোন প্রেমীদের জন্য সুখবর। বিশেষ করে যারা কিছুদিন পরপর মোবাইল ফোন পরিবর্তন করে নতুন ফোন ব্যবহার করেন তাদের জন্য সোনায় সোহাগা। কেন বলছি! সামনে বছরে জনপ্রিয় অ্যাপেল কোম্পানি দাম না বাড়িয়ে ৫টি ফাইভ জি ফোন বাজারে ছাড়বে।

সম্প্রতি এই খবর জানিয়েছেন জনপ্রিয় অ্যাপেল বিশ্লেষক মিং চি কুও। ২০২০ সালে একসঙ্গে চারটি নতুন স্মার্টফোন লঞ্চ করতে পারে কুপার্টিনোর কোম্পানিটি। যদিও কুও জানিয়েছেন দাম না বাড়িয়েই নতুন ৫জ আইফোন লঞ্চ করতে পারে অ্যাপেল।

৫জি যন্ত্রাংশ ব্যবহারের জন্য প্রতিটা আইফোন তৈরি করতে ৩০ মার্কিন ডলার থেকে ১০০ মার্কিন ডলার বেশি খরচ করতে হবে কোম্পানিকে। উৎপাদনের খরচ বাড়লেও নতুন আইফোনের দাম বাড়বে না বলেই জানিয়েছেন কুও। সম্প্রতি আইমোর নামে এক ওয়েবসাইটে এই খবর প্রকাশিত হয়েছে।

রিপোর্টে আরও জানানো হয়েছে আইফোন ১২ এ একটি কাস্টম ব্যাটরি প্রোটেকশন ব্যবহার হবে। যা আগের আইফোনের তুলনায় প্রায় ৫০ শতাংশ ছোট। ব্যাটারি প্রোটেকশনের আকার ছোট হওয়ার কারনে ফোনের ভিতরে আগের থেকে বেশি জায়গা পাওয়া যাবে। ফলে নতুন আইফোনে আগের থেকে বড় ব্যাটারি ব্যবহার হতে পারে।

আগামী বছর ৫জি কানেক্টিভিটি শ একাধিক নতুন আইফোন লঞ্চ করবে অ্যাপেল। এই ফোনগুলিতে ৫.৪ ইঞ্চি, ৬.১ ইঞ্চি আর ৬.৭ ইঞ্চি ডিসপ্লে ব্যবহার হবে। ২০২০ সালে এই ফোনগুলি লঞ্চ করবে কুপার্টিনোর কোম্পানিটি। চলতি বছর আইফোন ১১ সিরিজের তিনটি নতুন স্মার্টফোন লঞ্চ করেছিল অ্যাপেল।

এই ফোনগুলি হল আইফোন ১১, আইফোন ১১ প্রো আর আইফোন ১১ প্রো ম্যাক্স। এর মধ্যে আইফোন ১১ এ রয়েছে একটি ৬.১ ইঞ্চি এলসিডি ডিসপ্লে। অন্যদিকে আইফোন ১১ প্রো আর আইফোন ১১ প্রো ম্যাক্স ফোনে রয়েছে যথাক্রমে ৫.৮ ইঞ্চি আর ৬.৫ ইঞ্চি ওলেড ডিসপ্লে। সেপ্টেম্বর মাসে ভারতে আইফোন ১১ সিরিজের ফোনগুলি বিক্রি শুরু হয়েছিল।

অন্যদিকে ২০২০ সালের মার্চ মাসে বাজেট সেগমেন্টে নতুন আইফোন লঞ্চ করতে পারে অ্যাপেল। সম্প্রতি প্রকাশিত রিপোর্টে জানা গিয়েছিল জানুয়ারি মাসে এই ফোন উৎপাদন করছে মার্কিন কোম্পানিটি। এবার ৫জি ফোন লঞ্চের খবর সামনে এল।